Expatriate’s wife and three children hacked to death in Gazipur

ADVERTISING

Expatriate’s wife and three children hacked to death in Gazipur. In Gazipur, miscreants strangled four members of the same family, including a child. Locals informed the police on Thursday (April 23) afternoon. Police reached the spot around 4 pm to recover the body.

Local sources and Officer-in-Charge (OC) of Sreepur Police Station Liaquat Ali confirmed the killing to reporters.

ADVERTISING

Expatriate's wife and three children hacked to death in Gazipur pic

According to police, Fatema, wife of Malaysian expatriate Kajal, lives with her two daughters and a son in a flat above a two-storey house in Jaina Bazar area of ​​Sreepur. Expatriate Kajal is mainly from Mymensingh district. He bought land in Abed area of ​​Jaina Bazar in Sreepur, Gazipur and settled there.

According to local sources, no one was seen leaving the house since morning. People in the neighborhood thought that no one was coming out for fear of being infected with the corona virus. At noon, Fatima’s brother-in-law Arif Hossain went home with the necessities of life.

ADVERTISING

See details below …..

গাজীপুরে প্রবাসীর স্ত্রী ও তিন সন্তানকে গলা কেটে হত্যা

গাজীপুরে শিশুসহ একই পরিবারের চারজনকে গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) বিকেলে স্থানীয় জনগণ পুলিশে খবর দেয় । বিকেল ৪টার দিকে লাশ উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে পুলিশ।

স্থাণীয় সূত্রে ও শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী সাংবাদিকদের এই হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, শ্রীপুরের জৈনা বাজার এলাকায় মালয়েশিয়া প্রবাসী কাজলের স্ত্রী ফাতেমা তার দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে দোতলা বাড়ির ওপরের ফ্ল্যাটে থাকেন। প্রবাসী কাজল মূলত ময়মনসিং জেলার জনসাধারণ । গাজীপুরের শ্রীপুরের জৈনা বাজারের আবেদ এলাকায় জমি কিনে বাড়ি করে সেখানে স্থায়ী হয় ।

Expatriate’s wife and three children hacked to death in Gazipur

স্থাণীয় সূত্রে জানা যায়, বাড়ির কাউকেই সকাল থেকে বাইরে বের হতে দেখেনি কেউ । আশেপাশের লোকজন ভাবছিল তারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ভয়ে কেউ বাইরে বের হচ্ছেনা । দুপুরে ফাতেমার দেবর আরিফ হোসেন নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের বাজার নিয়ে বাসায় যায় ।

তখন আরিফ হোসেন অনেক ডাকাডাকি করার পরেও ভেতর থেকে কেউ সাড়া দিচ্ছিলনা । কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে অনেক ডাকাডাকির পর আরিফ হোসেন একটি জানালা দিয়ে ভেতরে দেখার চেষ্টা করে । বাইরে থেকে জানালা দিয়ে উকি দিয়ে আরিফ হোসেন ফাতেমা, শিশু ছেলে ফাদিল এবং তার ১৬ ও ১৩ বছরের দুই মেয়ের গলা কাটা রক্তাত লাশ দেখতে পান।

এরপরে দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে পেছনের একটি জানালা ভাঙ্গা অবস্থায় দেখতে পান তিনি। ঘটনাস্থল থেকে আরিফ হোসেন ও স্থানীরা পুলিশে খবর দেয় । খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌছালে গলা কাটা অবস্থায় ৪ টি লাশ দেখতে পায় ।

মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছে, প্রবাসী কাজলের স্ত্রী ফাতেমা , তার ১৬ বছরেরর দশম শ্রেণীতে পড়ুয়া বড় মেয়ে , মেঝো মেয়ে সপ্তম শ্রেণী পড়ুয়া ১৩ বছরের এবং ৭ বছর বয়সের প্রতিবন্ধী ছেলে ।

প্রত্যক্ষদর্শীররা জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে  ধর্ষনের আলামত পাওয়া গেছে ।

Expatriate’s wife and three children hacked to death in Gazipur

Even after Arif Hossain shouted a lot, no one was responding from inside. After many shouts without getting any response, Arif Hossain tried to look inside through a window. From outside, through the window, he saw the bloodied bodies of Arif Hossain Fatema, infant son Fadil and his two daughters aged 16 and 13.

He then broke down the door and entered the room and saw a broken back window broken. Arif Hossain and locals informed the police from the spot. Upon receiving the news, the police immediately reached the spot and found 4 bodies with their throats cut.

Among the dead were Fatema, wife of expatriate Kajal, his eldest daughter, a 16-year-old tenth grader, Mejho, a 13-year-old seventh-grader and a 7-year-old disabled boy.

Witnesses said signs of rape were found after inspecting the scene.

 Source: Online/ Somoy TV News

Corona VirusLive UpdateBD

Click & World update of the Corona virus here

More News:

Corona virus update in worldwide

The landlord (Sampa) who evicted the tenants was arrested

Corona virus update in worldwide

Maha Ramadan and Iftar Schedule 2020

ADVERTISING